সোমবার, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ০৮:২৬ অপরাহ্ন



 ফিট সাকিবকে পাওয়ার আশা কোচের
প্রকাশের সময়ঃ ২০২১-০২-০৪ ১১:৫১:১০

কাল থেকে মাঠে গড়াবে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজের প্রথম ম্যাচ। চট্টগ্রাম জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হবে দুই দল। লাল বলে মোটেও সহজ হবে না ক্যারিবীয়রা। তাই এরই মধ্যে টাইগাররা তাদের অনুশীলন চালিয়ে যাচ্ছে দারুণভাবে। ধারণা করা হচ্ছে টেস্টে টাইগারদের মূল অস্ত্র হবে স্পিন আক্রমণ। তাই নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে মাঠে ফেরা সাকিবই হবে দলের ভরসা। তার সঙ্গে তাইজুল ইসলাম, মেহেদী হাসান মিরাজ ও নাঈম শেখ হবে বাড়তি শক্তি। তবে ওয়ানডে সিরিজের শেষ ম্যাচ কুচকির ইনজুরিতে পড়েছিলেন সাকিব।
বড় কোন বিপদ না হওয়াতে অনুশীলনও শুরু করেছে তিন ধরে। কিন্তু যতটা ফিট থাকার কথা ততোটা নন তিনি। এমনটাই জানিয়ে জাতীয় দলের প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গো। তাতে অবশ্য দেশের সেরা স্পিনারকে নিয়ে আশা ছাড়েননি কোচ। তার আশা মাঠে নামার আগেই তিনি পুরোপুরি ফিট হয়ে যাবেন। ডমিঙ্গো বলেন, ‘সাকিব আমাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ একজন খেলোয়াড়। সে আমাদের ব্যাটিং ও বোলিংয়ের স্তম্ভ। সে বিশ্বমানের একজন অলরাউন্ডার। তিন সংস্করণে তার বিকল্প পাওয়া কঠিন। প্রসু্ততি পর্ব তার জন্য সহজ ছিল না। শেষ ওয়ানডেতে কুঁচকিতে চোট পেয়েছিল। তাকে পুনর্বাসনেও যেতে হয়েছে। এখনও সে শতভাগ ফিট নয়।’
পুরো ফিট না হলেও সাকিব বোলিং করছেন, লম্বা সময় ব্যাটিং অনুশীলন, ফিটনেস ট্রেনিং সবই চলিয়ে যাচ্ছেন টানা তিনদিন ধরে। আইসিসি’র নিষেধাজ্ঞার আগে ২০১৯ এর সেপ্টেম্বরে চট্টগ্রামেই শেষ টেস্ট খেলেছিলেন সাকিব। তার নেতৃত্বে আফগনিস্তানের সঙ্গে সাদা পোশাকের প্রথম দেখায় হারতে হয় টাইগারদের। লজ্জার এই হার সেবার যেন কাঁপিয়ে দিয়েছিল বাংলাদেশ দলের টেস্ট খেলার যোগ্যতাকে। প্রায়  দেড় বছরেরও বেশি সময় পর আবার টেস্ট খেলার সুযোগ এক সময়ের বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডারের সামনে। তাই নিজেকে ফিট করতে দারুণ পরিশ্রম করে যাচ্ছেন বলেই জানিয়েছেন প্রধান কোচ। ডমিঙ্গো বলেন, ‘ফিট হয়ে উঠতে চেষ্টার কমতি রাখছে না সাকিব। পুনর্বাসনে সে কঠোর পরিশ্রম করেছে। নেটে বল করেছে, কিছু বল খেলেছে। খুব অস্বস্তি অনুভব করেনি। আমরা বেশ আত্মবিশ্বাসী যে, সে বুধবার খেলতে প্রস্তুত হয়ে উঠবে।’
বুধাবার সিরিজের প্রথম ম্যাচে ক্যারিবীয়দের হালকাভাবে নেয়ার সুযোগ নেই তা ভালোভাবেই জানেন টাইগারদের প্রধান কোচ। বিশেষ করে ওয়েস্ট ইন্ডিজের পেসারদের নিয়ে ভয়তো আছেই। আর এই সব কারণেই কোচের কাছে সিরিজটি বেশ চ্যালেঞ্জিং মনে হচ্ছে।

ফেসবুক পেইজ