সোমবার, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ০৮:৩৬ অপরাহ্ন



অভিমানে ক্রিকেটই ছেড়ে দিলেন শায়লা
প্রকাশের সময়ঃ ২০২১-০১-২৯ ০৯:৫৩:৫৫

নিয়মিত খেলার পরও প্রাপ্য অর্থ পাননি তিনি। জাতীয় দলেও ঠিকঠাক সুযোগ পাননি। দলে থাকলেও একাদশে নেয়া হতো না তাকে। বারবার অবজ্ঞার শিকার হয়ে হতাশা, অভিমান ও ঘৃণা নিয়েই প্রিয় ক্রিকেট শব্দটা জীবন থেকেই মুছে ফেলতে চান দু’হাতে বল করতে পারা শায়লা শারমিন।

ক্রিকেট ছেড়ে ফ্রিল্যান্সার হিসেবে নতুন ক্যারিয়ার শুরু করেছেন এই সাবেক ক্রিকেটার। শায়লা  বলেন নানামাত্রিক রাজনীতির শিকার হচ্ছিলাম। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড থেকেও কয়েক বছর বেতন পাচ্ছি না। ক্লাবে খেলে প্রাপ্য টাকা পাইনি, প্রধানমন্ত্রীর দেয়া অর্থও পাইনি। এসব হতাশা থেকেই খেলা ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আর কখনই ক্রিকেটে ফিরব না।’

নিজের ফেসবুক পেজ থেকে ক্রিকেটার পরিচয়টাই মুছে ফেলেছেন। ক্রিকেট সংশ্লিষ্ট কোনো ছবিও নেই। এখন গ্রাফিক ডিজাইনার হিসেবে সারা দিন ল্যাপটপে সময় কাটে শায়লার। তিনি বলেন, ‘অনেক অবজ্ঞার শিকার হয়েছি। অলৌকিক স্বপ্নের জাল থেকে মুক্ত হতে পেরে ভালো লাগছে। নিজের পরিচয়টাই বদলে ফেলেছি।’ ২০১৭ সালে পাকিস্তানের বিপক্ষে দুই হাতেই বোলিং করে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের নজর কাড়েন শায়লা। ওই বছর বিসিবির বেতন কাঠামোয় ছিলেন না তিনি।

তখন নারী দলের দায়িত্বে থাকা নাজমুল আবেদিন ফাহিম শায়লাকে পছন্দ করতেন না বলেই দাবি তার। মেয়েদের ক্রিকেটে নিয়ম হল যারা জাতীয় দলে খেলবেন তারা মৌসুম শেষে ক্যাটাগরি অনুযায়ী পুরো অর্থবছরের বেতন পাবেন। এ বছরে শুরুতে টি ২০ বিশ্বকাপ ছাড়া সব সিরিজেই দলে ছিলেন শায়লা। এ নিয়ে বিসিবির মহিলা উইংয়ের চেয়ারম্যান শফিউল আলম চৌধুরী ও ইনচার্জ তৌহিদ মাহমুদের সঙ্গে যোগাযোগ করেও লাভ হয়নি।

শায়লা বলেন, ‘অস্ট্রেলিয়ায় টি ২০ বিশ্বকাপের আগে ভারত সফরে গিয়েছি। শ্রীলংকায় ইমার্জিং দলকে নেতৃত্ব দিয়েছি, বিশ্বকাপ বাছাইপর্বেও খেলেছি, দ্বিপাক্ষিক সিরিজের দলে ছিলাম। অথচ একদম নতুন যারা এসেছে দুই-একটি ম্যাচ খেলেছে কিংবা খেলেনি, তারাও বোর্ড থেকে বেতন পাচ্ছে। শুধু আমার বেলাতেই উল্টো।’

ক্রিকেটের জন্য সেমিস্ট্রার ড্রপ দিয়েছেন। ২০১৭ সালে প্রধানমন্ত্রীর তরফ থেকে দেয়া এক লাখ টাকাও পাননি শায়লা। কেন পাননি তা নিয়ে বিসিবি থেকে সঠিক উত্তরও পাননি তিনি। সর্বশেষ ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ খেলেছেন শেখ রাসেল স্পোর্টস ডেভেলপমেন্ট একাডেমির হয়ে। সেখানে পারিশ্রমিক দুই লাখ ১০ হাজার টাকাও পাননি। অনিশ্চিত ভবিষ্যৎ ধরে আর এগোতে চান না।

শায়লা সর্বশেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছেন গত বছরের সেপ্টেম্বরে। স্কটল্যান্ডে টি ২০ বিশ্বকাপ বাছাইয়ের ফাইনালে নেপালের বিপক্ষে তিন ওভারে নয় রান দিয়ে উইকেট নেন দুটি। এরপর শ্রীলংকা ও ভারত সফরেও দলে ছিলেন। এক যুগ আগে বাবাকে হারানো শায়লা স্বপ্নের ক্রিকেট ছেড়ে নতুন করে বাঁচার স্বপ্ন দেখছেন ফ্রিল্যান্সার হিসেবে।

ফেসবুক পেইজ